সাংবাদিকদের উন্নয়নে জেলা পরিষদ সহযোগিতা দেবে

সোমবার, এপ্রিল ৬, ২০১৫

:: এম. নাজিম উদ্দিন, রাঙামাটি ::

rangamati- 6-4-15রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের নব নিযুক্ত চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, মানুষের রক্তে কোন পার্থক্য নেই। পাহাড়ি-বাঙ্গালী সকলের রক্ত একই। তাই মানুষে মানুষে কোন ভেদাভেদ বা পার্থক্য থাকতে পারে না। আমাদেরকে সাম্প্রদায়িকতা ভুলে যেতে হবে। কে পাহাড়ি কে বাঙ্গালী তা এখন ভাবার সময় নয়।

রোববার বিকেলে জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে রাঙামাটিতে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে এক সৌজন্য স্বাক্ষাত ও মতবিনিময় অনুষ্ঠানে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জাকির হোসেন চৌধুরীর পরিচালনায় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য হাজি মুছা মাতাব্বর।

নব নিযুক্ত চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, জেলা পরিষদ বরাবরই স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে সুসম্পর্ক রেখে এসেছে। উন্নয়নের স্বার্থে সে সম্পর্ক আগের চেয়ে আরো বেশি মধুর হবে বলে আশা ব্যক্ত করে তিনি বলেন সাংবাদিকদের পেশাগত মান উন্নয়নে জেলা পরিষদ সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে যাবে।

এ সময় তিনি জেলা পরিষদের কার্যক্রমের স্বচ্ছতা এবং উন্নয়ন পরিকল্পনায় সাংবাদিকদের পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করার আহবান জানান। মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকরা এলাকার উন্নয়নে জেলা পরিষদকে আরো এগিয়ে আসার আহবান জানান।

সাংবাদিকরা সকল সাম্প্রদায়িকতার উর্ধ্বে উঠে মানবিক সুসম্পর্ক স্থাপন, জেলা পরিষদের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা, শিক্ষা ক্ষেত্রে বর্গা প্রথা রোধ, পর্যটন শিল্পকে অধিক গুরুত্ব দেয়া, স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়নে ১০ শয্যার হাসপাতাল ও এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের জন্য উদ্যোগ নেয়া, ইউএনডিপির কার্যক্রমে আরো বেশি তদারকি করা, হিমাগার স্থাপন ও সাংবাদিকদের পেশাগত মানোন্নয়নে প্রশিক্ষণ ও আবাসন সংকট নিরসনে উদ্যোগ নেয়ার আহবান জানান।

সভায় দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক একেএম মকছুদ আহমেদ,প্রবীণ সাংবাদিক সাপ্তাহিক পার্বত্য কণ্ঠের সম্পাদক মোখলেস-উর-রাহ্মান ভুঁইয়া, প্রেস ক্লাব সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন রুবেল, দৈনিক রাঙামাটির সম্পাদক আনোয়ার আল হকসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা নতুন পরিষদের এগিয়ে চলায় তাদের মতামত তুলে ধরেন।