ফ্রান্সে হামলা : সামক্যাব-এর বিবৃতি

শুক্রবার, ০৯/০১/২০১৫ @ ৪:৩৫ অপরাহ্ণ

:: প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

Journalist killবাংলাদেশে কর্মরত দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের পত্রিকা, টিভি চ্যানেল ও নিউজ এজেন্সির বাংলাদেশ প্রতিনিধিদের সংগঠন ‘সাউথ এশিয়ান মিডিয়া করেসপন্ডেন্টস এসোসিয়েশেন বাংলাদেশ (সামক্যাব)’ ফ্রান্সের পত্রিকা শার্লি হেবদোতে বর্বর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।

প্যারিস থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক ‘শার্লি হেবদো’র দফতরে নৃশংস হামলা প্রকারান্তরে জঙ্গিবাদের একটি বর্বর প্রকাশ। এভাবে কোনো গণমাধ্যম কার্যালয়ে প্রবেশ করে দুর্বৃত্তদের হামলা নজিরবিহীন ও ন্যক্কারজনক। ‘শার্লি হেবদো’ একটি ব্যঙ্গাত্নক পত্রিকা বলে মতের অমিল হলেই এভাবে সম্পাদক ও সাংবাদিকদের খুন করা সভ্য সমাজে কখনই সমর্থনযোগ্য নয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জঙ্গিবাদ তথা চরমপন্থী মতাদর্শের বিরুদ্ধে প্রগতিশীলরা প্রতিনিয়ত লড়াই করছে; যে লড়াইয়ে গণমাধ্যমও সঙ্গী হিসেবে রয়েছে।

বাংলাদেশেও জঙ্গিবাদ ও বিভিন্ন ধরনের চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে সাংবাদিকসহ পুরো গণমাধ্যম নিয়মিত সংবাদ ও মতামত প্রকাশ করছে। তাই বাংলাদেশসহ বিশ্বের যেকোনো দেশেই সাংবাদিক ও গণমাধ্যমের সঙ্গে মতের অমিল হলে কোনো পক্ষ আইন নিজের হাতে তুলে নেবে তা কারই কাম্য হতে পারেনা। এভাবে কোনো গণমাধ্যম কার্যালয়ে নারকীয় ঘটনার কথা আমরা ভাবতেও পারিনা। এই কারণেই শার্লি হেবতো পত্রিকায় স্মরণকালের একটি জঘন্য ঘটনা হিসেবে নিন্দা জানানো হচ্ছে। স্বাধীন সাংবাদিকতার উৎসাহদাতা সংগঠন হিসেবে সামক্যাব মনে করে, গণমাধ্যম ও সাংবাদিকদের ওপর যারা হামলা করেছে তারা কখনই গণতন্ত্র ও বিশ্বশান্তির মিত্র হতে পারে না।

এখানে উল্লেখ্য যে, শার্লি হেবদো পত্রিকায় হামলার সময় দুর্বৃত্তরা শান্তির ধর্ম ইসলামের নাম ব্যবহার করেছে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করতে চাই, প্রকৃত ইসলামের নামে এভাবে কখনই কাউকে আক্রমণ করার অধিকার দেওয়া হয়নি। এটা মানবাধিকারের চরম লঙঘনও বটে। কয়েকজন দুবৃত্তের দায় কোটি কোটি ইসলাম ধর্মাবলম্বী মেনে নেবেন না বলেও আমরা বিশ্বাস করি।

প্যারিসের ওই ঘটনায় নিহত সম্পাদকসহ ১০ সাংবাদিক-কার্টুনিস্ট ও দুইজন পুলিশ সদস্যর বিদেহী আত্নার শান্তি কামনা এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সহানুভুতি জানানো হচ্ছে।