প্রভাষ আমিন

শনিবার, ২২/০২/২০১৪ @ ১১:৩৬ অপরাহ্ণ

:: প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

Probhash-Amin-2 সাংবাদিকতা করার স্বপ্ন নিয়ে ১৯৮৮ সালে প্রভাষ আমিন ঢাকায় আসেন। ১৯৮৯ সালে সাপ্তাহিক বিচিত্রায় একটি বিজ্ঞাপন দেখে বিচিন্তা সম্পাদক মিনার মাহমুদের সাথে যোগাযোগ করেন। সেই থেকে এই ভালোলাগার পেশায় জড়িয়ে যাওয়া। শুরুতে নানা পত্রিকায় লেখালেখি করেছেন।

বিচিন্তা, প্রিয় প্রজন্ম, বাংলাবাজার পত্রিকা, জনকণ্ঠ, ভোরের কাগজ, প্রথম আলো, এনটিভি, সিএসবি হয়ে এখন কাজ করছেন এটিএন নিউজে। ছোটবেলা থেকেই প্রভাষ আমিন নিয়মিত পত্রিকা আর বই পড়তেন। সেই থেকে লেখালেখির ইচ্ছাটা জাগে তার। তবে নিমাই ভট্টাচার্যের লেখা ‘জার্নালিস্টের জার্নাল’ পড়ে সাংবাদিকতা করার আগ্রহ জন্মে ছোটবেলাতেই। তার প্রথম লেখা ছাপা হয়েছিল পাক্ষিক অনন্যায়। সেটি ছিল মিনার মাহমুদের দেওয়া অ্যাসাইনমেন্ট।

ছাপার অক্ষরে নিজের নাম দেখে অন্যরকম অনুভূতি হয়েছিল তার। প্রভাষ আমিন মূলত সমসাময়িক ঘটনাবলি নিয়ে লেখেন। শুরুতে নামে বেনামে দু হাতে লিখেছেন। অনিয়মিতভাবে লিখতে লিখতেই তার একটি পাঠকমহল তৈরি হয়ে যায়। তারা এবং বন্ধু-বান্ধবরা পরামর্শ দেয় বই প্রকাশের। শেষ পর্যন্ত ২০১৩ সালে ঐতিহ্য প্রকাশ করে তার প্রথম বই ‘স্বাধীনতা আমার ভালো লাগে না’। ২৩ বছরের লেখালেখির সংকলন। তাই বাছাই করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হয়েছে। তবে বই প্রকাশের পর যে সাড়া পেয়েছেন তা অভাবনীয়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস-ইউল্যাব-এর সাংবাদিকতা বিভাগে বইটি পড়ানো হয়। শিক্ষার্থীদের বইটির রিভিউ করতে হয়। এবারের বইমেলায় তার দুটি বই প্রকাশিত হয়েছে। অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘প্রধানমন্ত্রীই যেখানে অসহায়’ বইটির ভূমিকা লিখেছেন সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। আরেকটি বই প্রকাশ করেছে অনন্যা। ‘রাজাকারের ফাঁসি সারা বাংলার হাসি’ নামের এই বইটির ভূমিকা লিখেছেন শাহরিয়ার কবির।

এই প্রজন্মের পঠনরুচি সম্পর্কে মূল্যায়ন করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘শুধু এই প্রজন্ম নয়, সব প্রজন্মের পাঠকেরই প্রথম পছন্দ উপন্যাস। মানুষ গল্প শুনতে পছন্দ করে। তবে সুখের কথা, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নিয়েও বর্তমান প্রজন্মের অনেক আগ্রহ আছে। অনেক লেখক গল্প-উপন্যাসে তুলে আনেন মুক্তিযুদ্ধ।’

অফিস আর বইমেলার ব্যস্ততায় এখন খুব একটা পড়ার সময় পাচ্ছেন না তিনি। তবে বন্ধু মিজানুর খানের উপন্যাস ‘সোনার পরমতলা’ পড়ছেন। এ ছাড়া তার পড়ার তালিকায় আছে খালেদ মুহিউদ্দিনের উপন্যাস ‘কন্ট্রোল সি কন্ট্রোল ভি’, শাহাদুজ্জামানের গল্প ‘অন্য এক গল্পকারের গল্প নিয়ে গল্প’, উত্পল শুভ্রের ‘শচীন রূপকথা’। তার প্রিয় লেখকের তালিকাটাও অনেক লম্বা।

অন্য অনেকের মতো তিনিও কথাসাহিত্য পছন্দ করেন। তিনি জানালেন, রবীন্দ্রনাথ জুড়ে আছেন তার সবটুকু। নজরুলও মাতিয়ে রাখেন তাকে। এ ছাড়াও রয়েছেন মানিক বন্দোপাধ্যায়, বিভূতিভূষণ, শরত্চন্দ্র চট্টোপাধ্যায়। রশীদ করিম, মাহমুদুল হক তার খুব প্রিয়। হুমায়ূন আহমেদ আর মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখাও আনন্দ নিয়ে পড়েন। অনেকটা অংশ জুড়েই আছেন নির্মলেন্দু গুণ।

ম্যাক্সিম গোর্কির ‘মা’ যেমন তাকে অনুপ্রাণিত করেছে, আনিসুল হকের ‘মা’ও তেমনি। জাহানারা ইমামের ‘একাত্তরের দিনগুলি’ পড়লে একাত্তরের চিত্রটা পাওয়া যায়। জীবনানন্দ দাশের কবিতা তার খুব প্রিয়। প্রেম করেছেন হেলাল হাফিজ পড়ে। তবে পাঠক বানিয়েছে মাসুদ রানা।

তিনি স্বপ্ন দেখেন একটি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় একটি উন্নত, গণতান্ত্রিক, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের। যেখানে সবাই তার পছন্দের কাজ করার সুযোগ পাবে। তিনি চান, এই পৃথিবী আরও মানবিক হবে, আরও বাসযোগ্য হবে।

এক নজরে

প্রভাষ আমিন

ডাকনাম :প্রভাষ

জন্মতারিখ ও স্থান :২৮ আগস্ট, কুমিল্লা

মায়ের নাম :মাহবুবা খানম

বাবার নাম :মরহুম আব্দুল বাতেন খন্দকার

প্রথম স্কুল :চাঁদগাও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

প্রিয় মানুষ :নেলসন ম্যান্ডেলা

প্রিয় উক্তি :যা আপনি ঘুমিয়ে দেখেন তা স্বপ্ন নয়, যা আপনাকে ঘুমাতে দেয় না, সেটাই স্বপ্ন। (এ পি জে আব্দুল কালাম)

প্রিয় পোশাক :জিন্স, টি-শার্ট, লুঙ্গি

অবসর কাটে যেভাবে :বই পড়ে, গান শুনে, সিনেমা দেখে

সাফল্যের সংজ্ঞা :এটা সফল মানুষেরা বলতে পারবে। আমি তো সফল নই, তাই সংজ্ঞাও জানি না।

সৌজন্যে: ইত্তেফাক।

সর্বশেষ