মিডিয়ায় দুই-তৃতীয়াংশ নারী হয়রানির শিকার

বুধবার, ০৪/১২/২০১৩ @ ৪:১৪ অপরাহ্ণ

:: প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

female tv reporter(০৪ ডিসেম্বর ২০১৩)- প্রায় প্রতিটি জায়গায়ই এখনো মহিলারা নির্যাতনের শিকার। বিশ্বের দুই তৃতীয়াংশ নারী সাংবাদিক কর্মক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের হয়রানির শিকার হন। সম্প্রতি ইন্টারন্যাশনাল নিউজ সেফটি ইন্সটিটিউট (আইএনএসআই) এবং দ্য ইন্টারন্যাশনাল উইমেন্স মিডিয়া ফাউন্ডেশনের (আইডব্লিউএমএফ) করা এক জরিপে এই তথ্য উঠে আসে।

এই জরিপটি এমন সময়ই প্রকাশ হয় যখন ভারতের রাজধানী দিল্লি উত্তাল দুটি হাইপ্রোফাইল যৌনহেনস্থা কাণ্ড নিয়ে। একজন সাংবাদিক এবং আরেকজন বিচারকের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠেছে।

সংস্থা দুটির মতে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কর্মক্ষেত্রের পুরুষ বস, উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং সহকর্মী কর্তৃক এই হয়রানির শিকার হয় নারী সাংবাদিকেরা। হয়রানির শিকার অর্ধেক নারী সাংবাদিকই শারিরীকভাবে হয়রানির শিকার হন। যদিও বেশিরভাগই এব্যাপারে মুখ বুজে থাকে।

আইএনএসআই প্রধান হান্নাহ স্ট্রোম বলেন, ‘যখন আমরা মিডিয়ার নিরাপত্তা নিয়ে কথা বলি, সবসময়ই আমরা যুদ্ধক্ষেত্র, জন অসন্তোষ এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে সাংবাদিকদের নিরাপত্তার বিষয়টিকেই আমল দেই। কিন্তু কদাচিৎ আমরা মিডিয়া অফিসগুলোর অভ্যন্তরীন বৈরি পরিবেশ সম্পর্কে ভাবি। মাঠপর্যায়ে জরিপ করে আমরা নারী সাংবাদিকদের নিজেদের কর্মক্ষেত্রে ঝুঁকির বিষয়গুলো জানতে পেরেছি। তারা তাদের সহকর্মীদের দ্বারা হয়রানির শিকার হন। নারী সাংবাদিকদের উপর এধরনের হয়রানি কিংবা সহিংসতার কোনো সুষ্ঠু বিচার হয় না অধিকাংশ ক্ষেত্রেই, অপরাধীকে দেয়া হয় না তেমন কোনো শাস্তি।’

জরিপটি চলতি বছরের জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত ৮৭৫ জন নারী সাংবাদিকের উপর করা হয়। প্রায় একশ’র বেশি নারী সাংবাদিক জানায়, তাদেরকে শারিরীকভাবে নির্যাতন এবং অনেকক্ষেত্রে অস্ত্র দিয়ে ভয় পর্যন্ত দেখানো হয়েছে। অনেক সময় পুলিশ কর্তৃপক্ষকে মৌখিক বা লিখিত অভিযোগ জানালেও পুলিশ তেমন কোনো ব্যবস্থা নেয় না।

অন্যদিকে ২৭৯ জন নারী সাংবাদিক কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির শিকার হন। কর্তৃপক্ষ মারফত লিখিত বা শারিরীক হুমকি ধামকি নির্ভর চিঠি নারী সাংবাদিকদের জন্য সাধারণ ঘটনা হয়ে গেছে। প্রায় ১৬০ জনের বেশি নারী সাংবাদিকের ব্যাক্তিগত ই-মেইল হ্যাক করা হয়েছে বিভিন্ন সময়ে।