একটি দৈনিকের গল্প বললেন প্রধানমন্ত্রী

মঙ্গলবার, আগস্ট ২৭, ২০১৩

:: প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

sheikh hasina pic(২৭ আগস্ট ২০১৩)- ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনামকে নিয়ে একটি পুরনো ঘটনা মন্ত্রিসভাকে শোনালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক শুরুর আগেই এ ঘটনাটি বলেন তিনি। কয়েক জন সিনিয়র মন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে প্রধানমন্ত্রী শুরুতেই মন্ত্রীদের উদ্দেশে বলেন, আমাদের সরকার অন্যান্য সরকারের চেয়ে অনেক সফলভাবে নির্বাচন থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। তারপরও দেশের সংবাদপত্রগুলোর যেন

আমাদের সরকারের বদনাম না লিখলে তাদের ভাল লাগে না। প্রধানমন্ত্রী ঘটনাটি শুরু করে বলেন, ’৯৬ সালে সরকারে থাকার সময়ে একদিন খবর পাই সাঈদ এস্কান্দরের ছেলেকে মারধর করেছে ৩২ নম্বরের বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সিকিউরিটি গার্ড। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি, সাঈদ এস্কান্দরের ছেলের সঙ্গে তার গাড়ির ড্রাইভারের ঝগড়া বেধেছিল। কারণ, তার ছেলে চাইছিল ড্রাইভ করতে, ড্রাইভার কোনমতেই ড্রাইভ করতে দেবে না। এমন ঘটনার সময় গাড়িটি ৩২ নম্বরে থামলে সিকিউরিটি গার্ড তাদের দু’জনকে বুঝিয়ে বাড়ি চলে যাওয়ার জন্য বলেন।

পরদিন ডেইলি স্টার পত্রিকায় চমকে যাওয়ার মতো একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। বলা হয়, ৩২ নম্বরের বঙ্গবন্ধুর বাড়ির সিকিউরিটি গার্ড সাঈদ এস্কান্দরের ছেলেকে মারধর করেছে। এছাড়া আরও নানা কথা লেখা হয়। সাঈদ এস্কান্দরের আত্মীয় মোজাফফর হোসেন পল্টু। তার মাধ্যমে খোঁজ নিয়ে আসল ঘটনা জানতে পারি।

পল্টু আমাকে জানান, সিকিউরিটি গার্ড তাকে ঠিকভাবে বাড়িতে পাঠিয়েছে। মূল ঘটনা ঘটেছে ড্রাইভার ও সাঈদ এস্কান্দরের ছেলের মধ্যে। বিষয়টি সম্পর্কে পরিষ্কার জানার পর ডেইলি স্টার সম্পাদককে আমার সংসদ ভবনের কার্যালয়ে চায়ের দাওয়াত দিই। এরপর খবর দেয়া হয় মিডিয়া কর্মীদের। সব কিছু ঠিক করে ডেইলি স্টার সম্পাদকসহ একটি টিম নিয়ে সাঈদ এস্কান্দরের বাসায় পাঠিয়ে আসল ঘটনা তুলে আনি। এরপর ওই সম্পাদক দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন।

এখনও তারাই বিভিন্নভাবে সরকারের বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে। কয়েক দিন আগে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ডেইলি স্টারকে এক হাত নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমি যতই ভাল বলি না কেন ডেইলি স্টার কাল উলটাপালটা লিখবেই। আমাদের সরকারের গত সাড়ে চার বছরের শাসনামল ছিল স্বর্ণযুগ। কিন্তু সরকারের এ সফলতা কেউ তুলে ধরে না।

ডেইলি স্টারের মতো সব সংবাদপত্র সরকারের বিরুদ্ধে লিখবেই। ওদিকে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ আইন ২০১৩-এর খসড়া নিয়ে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের মধ্যে বাহাস হয়েছে। সারের দাম কমানোর কারণে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক। সব মন্ত্রী টেবিল চাপড়িয়ে ধন্যবাদ দেন। এছাড়া আরও দু’-একটি বিষয় অনির্ধারিত আলোচনায় উঠে আসে।
উৎসঃ মানব জমিন