ড্যাফোডিলে গনযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ

সোমবার, জুলাই ২৯, ২০১৩

:: প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

kolom02(২৯ জুলাই ২০১৩)- আধুনিক জীবনে ইলেক্ট্রনিক কিংবা প্রিন্ট মিডিয়ার নিত্যদিনের অনুপস্থিতি নিয়ে এখন আর জীবন উপলব্ধি করা যায় না। আজকাল শিক্ষিত উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্ত অথবা নিম্নবিত্ত কারোরই জীবনে মিডিয়ার অনুপস্থিতি কল্পনা করা যায় না। সমাজের প্রতিটি মানুষের সঙ্গে এ মাধ্যমের যেকোন একটি দিনের বেশ কিছুটা সময় জড়িয়ে থাকে।

বাংলাদেশের ছুটিছাটার কারণে সংবাদপত্রের প্রকাশনা বন্ধ থাকলেও টেলিভিশনের কোন ছুটি নেই। আর হাল আমলে সেটা দাঁড়িয়েছে চব্বিশ ঘণ্টার উপস্থিতিতে। সম্ভবত এ কারণেই বাংলাদেশের গ্রামের মানুষও এখন পত্রিকা আর টেলিভিশন ছাড়া জীবন যাপন করতে পারেন না। এই যে মানুষের নিত্যদিনের সঙ্গী মিডিয়া এর বিরাট একটি অংশজুড়ে আছে অবশ্যই খবর। এছাড়া বিনোদন, তথ্য, শিক্ষার মতো বিষয়গুলো তো রয়েছেই। বয়স, ধর্মবিশ্বাস, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক অবস্থানভেদে একেকজনের কাছে এর অর্থ একেক রকম হতে পারে, কিন্তু সংবাদ মাধ্যম বা মিডিয়া আপাত দৃষ্টিতে জড় পদার্থ হলেও এটি এক অদ্ভুত জীবনীশক্তির উৎস।

সাংবাদিকতা আজ আর দশটা পেশার চেয়ে বেশি সম্মানজনক হওয়ায় এ পেশায় ক্যারিয়ার গড়তে মেধাবীরা অনেকেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, কিন্তু যে কোন পেশাতেই ভাল ক্যারিয়ার গড়তে হলে প্রয়োজন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সাংবাদিকতা তথা মিডিয়া যেভাবে স¤প্রসারিত হচ্ছে এবং তার রূপ ক্রমশ যেভাবে পেশাদারিত্বের দিকে ঝুঁকছে সে তুলনায় পেশাদার কর্মী গড়ার প্রতিষ্ঠান একেবারেই অপ্রতুল। এই অভাবকে পূরণ করার মানসেই গুণগত শিক্ষার নিশ্চয়তার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি গনযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ। আর এ উদ্যোগে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. গোলাম রহমান।

প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমানে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক গোলাম রহমান।

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ-এ রয়েছে চার বছর মেয়াদী অনার্স এবং পরবর্তীতে এক বছর মেয়াদী মাস্টার্স ডিগ্রী। তাছাড়া সাংবাদিকতা পেশায় ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী বিভিন্ন ডিসিপ্লিন থেকে আসা শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে দুই বছর মেয়াদী মাস্টার্স কোর্স। এ সুযোগ বাংলাদেশে শুধুমাত্র ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগেই রয়েছে।
সাংবাদিকতা একটি বাস্তবমুখী পেশা হওয়ায় এ পেশায় ছাত্রদের হাতেকলমে শিক্ষাদান পদ্ধতির কোন বিকল্প নেই। এ বিষয়টি মাথায় রেখে এবং এ অবস্থার মোকাবেলা করে পেশাদার মিডিয়াকর্মী গড়তে এ বিভাগে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে একটি বৃহৎ আয়তনের আধুনিক মিডিয়া ল্যাব। মিডিয়া ল্যাবটিতে শিক্ষার্থীদের হাতেকলমে শিক্ষা প্রদান করা হয়। ল্যাবটিতে রয়েছে সব ধরনের কারিগরি সরঞ্জাম ব্যবহারের সুবিধা। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে এ রকম একটি মিডিয়া ল্যাব কল্পনা করা যায় না।

ড্যাফোডিল ইনটারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের জন্য এসব সুবিধার পাশাপাশি রয়েছে- মানসম্মত পাঠাগার, ফিল্ম ক্লাব, অনলাইন পত্রিকা, স্টাডি সার্কেল গ্রুপ, পত্রিকায় লেখালেখির সুযোগও। ছাত্রছাত্রীরা ক্যাম্পাস রেডিও পরিচালনা ও অনলাইন পত্রিকা সম্পাদনা ও প্রকাশনার সুযোগ পাচ্ছে। তাছাড়া ক্যাম্পাসগুলো ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের আওতায় আনার ফলে শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে সর্বক্ষণিক ইন্টারনেট সুবিধা। আর অনার্সে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা এক বছরের মাথায় হাতে পাচ্ছে বিনামূল্যে একটি ল্যাপটপ। যোগাযোগ: ১০২ শুক্রাবাদ, ঢাকা-১২০৭, ফোন ঃ ৯১৩৮২৩৫, ০১৭১৩৪৯৩০৮৯।