বাংলামেইলের ডোমেইন হস্তান্তর করেছেন সম্রাট

শনিবার, ২০/০৭/২০১৩ @ ১২:০১ অপরাহ্ণ

প্রেসবার্তাডটকম প্রতিবেদন ::

bamil logo.(২০ জুলাই ২০১৩)- বাংলামেইলের সাংবাদিকদের স্বার্থে ডোমেইন হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলামেইলের সাবেক সম্পাদক আসাদুজ্জামান সম্রাট।

বৃহস্পতিবার রাতে খাসখবরডটকমে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে এ কথা জানা যায়। খাসখবরের সূত্র উল্লেখ করে শুক্রবার এ সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন প্রেসবার্তায় প্রকাশিত হয়েছে। যদিও পরে খাসখবরের মূল প্রতিবেদনটি থেকে হস্তান্তর সম্পর্কিত বক্তব্য সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

তবে এ বক্তব্যের স্ক্রিন শর্ট প্রেসবার্তার কাছে সংরক্ষিত আছে।

আসাদুজ্জামান সম্রাট খাসখবরডটকমের প্রধান সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে যোগ দিয়েছেন।

‘বাংলামেইল সম্পাদক আসাদুজ্জামান সম্রাট খাসখবরের প্রধান সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক’ শিরোনামের খাসখবরের একটি প্রতিবেদনে বাংলামেইলের ডোমেইন হস্তান্তর নিয়ে তার বক্তব্য প্রকাশিত হয়। অবশ্য পরে প্রতিবেদনটির শিরোনাম পরিবর্তন করে ‘বাংলামেইল সম্পাদক আসাদুজ্জামান সম্রাট এখন খাসখবরে’ শিরোনামে করা হয়েছে।

উল্লেখ, গত ১৪ জুলাই আসাদুজ্জামান সম্রাট বাংলামেইলের সম্পাদক পদে ইস্তফা দিলেও ডেমেইন পাসওয়ার্ড তার কাছেই ছিল। বাংলামেইল পরিবার ও আজিম গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান মেইল মিডিয়া লিমিটেড ডোমেইন হস্তান্তরের ব্যাপারে বারবার তাগাদা দিলেও সম্রাট ডোমেইন হস্তান্তর না করার কথা জানিয়ে বলেন, ‘কোনো কিছুর বিনিময়ে ডোমেইন হস্তান্তর করা হবে না’। এ বক্তব্য প্রেসবার্তাসহ বিভিন্ন অনলাইনে প্রকাশিত হয়। তবে সর্বশেষ বক্তব্য অনুযায়ী তিনি সে অবস্থান থেকে সরে আসেন।

আসাদুজ্জামান সম্রাটের পদত্যাগের পর বাংলামেইলে নতুন ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নিয়োগ দেয়া হয় ১৭ জুলাই। কিন্তু ওই রাতেই জনপ্রিয় এ অনলাইন হ্যাক করা হয়। তখন বাংলামেইল লিখে সার্চ দিলে খাসখবরডটকম দেখা যাচ্ছিল। বাংলামেইল থেকে অভিযোগ করে বলা হয়, বাংলামেইলের সাবেক সম্পাদক আসাদুজ্জামান সম্রাটই এ কাজ করিয়েছেন। ঘণ্টাখানেক পরে অবশ্য বাংলামেইল ও খাসখবর দুটি সাইটই বন্ধ হয়ে যায়। শেষ রাতের দিকে অনলাইনে ফিরে আসে বাংলামেইল। আর খাসখবর অনলাইনে ফিরে আসে পরদিন দুপুরের দিকে।

আর ওইদিনই আসাদুজ্জামান সম্রাটের মালিকানাধীন অনলাইন খাসখবরডটকমে ওই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানা যায়, বাংলামেইলের ডোমেইন হস্তান্তর করেছেন সম্রাট। তিনি বলেন, ‘সেখানে কর্মরত সাংবাদিকদের অনিশ্চয়তার কথা ভেবে গত রাতে এর ডোমেইন হস্তান্তর করে দিয়েছি। আমি আশা করি প্রতিষ্ঠানটির অগ্রযাত্রা তারা অব্যাহত রাখবে।’

উল্লেখ্য, বাংলামেইল ছাড়ার ব্যাপারে মালিক পক্ষের সঙ্গে বনিবনা না হওয়াকেই কারণ হিসেবে উল্লেখ করে একটি জবানবন্দিও লিখেছেন সম্রাট। তা প্রেসবার্তাডটকমে গত ১৭জুন প্রকাশিত হয়েছে।

তবে বাংলামেইল সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র দাবী করেছে, বাংলামেইলের সাংবাদিকদের তোপের মুখেই তিনি অনলাইনটি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। গত ২৬ মে তার পদত্যাগের দাবিতে বাংলামেইলের সাংবাদিকরা স্বাক্ষর করেন। এরপর থেকে আসাদুজ্জামান সম্রাট অধিকাংশ দিনই অফিসে অনুপস্থিত ছিলেন।