অভিনব পদ্ধতিতে হলুদ সাংবাদিকতার প্রতিবাদ

বৃহস্পতিবার, ১৮/০৭/২০১৩ @ ১২:৫৯ অপরাহ্ণ

প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

amanda(১৮ জুলাই ২০১৩)- ঘর ভর্তি লোকের সামনে হুট করে কেউ যদি সামনে এসে সপাটে আপনার গালে চড় কষান কেমন লাগবে? হকচকিয়ে যাবেন? রাগ হবে চুড়ান্ত? নাকি লজ্জায় মাটিতে মিশে যেতে ইচ্ছে করবে? তা আপনার ঠিক কেমন রিঅ্যাকশন হবে, তার খোঁজ আমরা কী করে রাখব বলুন! কিন্তু এই মুহূর্তে বৃটেনের- ডেইলি মেল ট্যাবলয়েডের কর্মকর্তাদের নিশ্চয়ই সামান্য হলেও লজ্জা হচ্ছে তাদের হলুদ সাংবাদিকতার জন্যে!

এই কথাগুলো পড়ে ধোঁয়াশা লাগছে? তাহলে খানিকটা খোলসা করেই বলা যাক। সম্প্রতি গ্লাস্টনবরিতে আম্যান্ডা পামারের একটি গানের অনুষ্ঠান ছিল। প্রচারের স্বাভাবিক নিয়ম মেনেই সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল ডেইলি মেল ট্যাবলয়েডকে। উদ্দেশ্য, কাগজের পাতায় অনুষ্ঠানের আলোচনা-সমালোচনা। নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে ট্যাবলয়েডের দপ্তর থেকে সাংবাদিকও এসেছিলেন। কিন্তু যখন সমালোচনা বেরোল তখন দেখা গেল আম্যান্ডার মিউজিকের কোনো উচ্চবাচ্চ্যই নেই! বরং বেশ রসিয়ে রসিয়ে লেখা হয়েছে কীভাবে অনুষ্ঠান চলাকালীন আম্যান্ডার ওয়ার্ডরোব ম্যালফাংশান হয়েছিল, যার জেরে ক্ষণিকের জন্য তার স্তনবৃন্ত দৃশ্যমান হয়েছিল!

একজন নারী তো বটেই, সেই সঙ্গে একজন শিল্পীর কাছেও এর থেকে চরম অপমান আর কিছুই হতে পারে না। তবে এর প্রতিবাদে কোনো আইনি নোটিস পাঠাননি আম্যান্ডা। বরং তার প্রতিবাদ ও রাগ প্রকাশ করেছেন এক অভিনব পদ্ধতিতে। শুক্রবার রাতে লন্ডনের রাউন্ডহাউস প্রেক্ষাগৃহে তার একটি কনসার্ট ছিল। সেখানে এমন একটি গান তিনি উপস্থিত শ্রোতাদের শোনালেন যে গানের প্রতিটি লাইন-ই বুলেটের মতো ধাবমান ওই ট্যাবলয়েডটির দিকে। ওই সংবাদপত্রটিকে গানে গানে সরাসরি ‘নারীবিদ্বেশী বজ্জাত’ বলেছেন তিনি! এবং এখানেই থেমে থাকেননি। মোক্ষম একখানা চড় কষিয়েছেন অন্যভাবে। অনুষ্ঠানের মাঝেই আম্যান্ডা নিজের শরীর থেকে সব পোশাক খুলে ফেলেন। বলেন, এই বিবস্ত্র প্রতিবাদই তার অস্ত্র। বিস্মিত শ্রোতাদের তিনি অনুরোধ করেন, অনুষ্ঠানটি লেন্সবন্দি করে ইউটিউবে আপলোড করে দিতে!

সাবাস আম্যান্ডা! এই না হলে প্রতিবাদ!

সূত্র: এই সময়।

সর্বশেষ