দৈনিক বর্তমান ও দ্যা ডেইলি সানমুন স্টার-এর শুভ উদ্বোধন

মঙ্গলবার, ০২/০৭/২০১৩ @ ৯:৫৯ অপরাহ্ণ

প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

bartoman-(০২ জুলাই ২০১৩)- সংবিধান লঙ্ঘিত হয় এমন সংবাদ পরিবেশনের কারণে সরকার বাধ্য হয়ে কিছু সংবাদপত্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় বলে মন্তব্য করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ।

সংবিধানের ৩৯ অনুচ্ছেদের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অনুচ্ছেদে সংবাদক্ষেত্রের স্বাধীনতার ও মত প্রকাশের নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে। কিন্তু মাঝে মাঝে রাষ্ট্রের নিরাপত্তা, বিদেশি রাষ্ট্রসমূহের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, জনশৃঙ্খলা, শালীনতা ও নৈতিকতার স্বার্থে কিংবা আদালত-অবমাননা, মানহানি বা অপরাধ সংঘটনে প্ররোচনা দেয়া হয় এমন সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর ফলে সরকার বাধ্য হয়ে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়।’

মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘দৈনিক বর্তমান ও ডেইলি সানমুন স্টার’ পত্রিকার উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর জন প্রশাসন বিষয়ক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেন, সবকিছু দেখে মনে হচ্ছে, পত্রিকা দুটি মান রক্ষা করে ভালোভাবে চলবে। ‘মর্নিং সোজ দি ডে’ এ প্রবাদটি দিয়ে প্রমাণ হয়, পত্রিকা দুটি ভালোই চলবে। পাশাপাশি বাংলাদেশ কিভাবে চলবে সে ব্যাপারে ভূমিকা রাখবে পত্রিকা দুটি। তিনি বলেন, পত্রিকা দুটি নিরপেক্ষ হবে, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কথা বলবে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে পত্রিকা অসংখ্য। কেবল ঢাকাতেই সাড়ে ৩শ’র বেশি। এরমধ্যে যেসব পত্রিকা টিকে থাকবে-আশারাখি সেগুলোকে ছাড়িয়ে যাবে পত্রিকদুটি। একইসঙ্গে দেশের শীর্ষ পত্রিকাগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে জায়গা করে নেবে দৈনিক বর্তমান ও ডেইলি সানমুনষ্টার।

বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, পত্রিকা হচ্ছে সমাজের দর্পণ। সমাজের চিত্র পত্রিকার মাধ্যমে ফুটে উঠে। বস্তুনিষ্ট সংবাদপত্র দেশ ও সমাজকে পরিচালনার ক্ষেত্রে অসামান্য ভূমিকা পালন করে। তিনি বলেন, স্বাধীকার আন্দোলন থেকে স্বাধীনতা এবং গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য ভূমিকা রেখেছে সংবাদপত্র। ভবিষ্যতের নতুন প্রজন্ম এবং দেশের মানুষের মনন পরিচালনার জন্য সংবাদপত্র দৃঢ় ভূমিকা রাখে।
স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, দৈনিক বর্তমান ও ডেইলি সানমুনস্টার হোক মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি। এ পত্রিকা দুটি গনতন্ত্র ও শোষিত মানুষের পক্ষে কথা বলবে এটাই গণ মানুষের প্রত্যাশা।

মুন গ্রুপের পরিচালক রাজিয়া রহমান বলেন, পত্রিকা দুটি নারী উন্নয়নে কাজ করবে। একইসঙ্গে নতুন নারী লেখকও সৃষ্টি করবে। এই সংবাদপত্র দুটি বস্তুনিষ্ঠতা বজায় রেখে তথ্য ভিত্তিক সুন্দুর, সুষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে সমাজকে সচেতন করবে। এছাড়া পত্রিকা দুটির সার্বিক উন্নয়নে সবার সহযোগিতা ও দোয়া চেয়েছেন রাজিয়া রহমান।

দৈনিক বর্তমান ও ডেইলি সানমুনষ্টার-এর সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান বলেন, আমরা কারো পক্ষে কিংবা বিপক্ষে লেখার জন্য সংবাদপত্র বের করিনি। আমরা শুধু সত্যের পক্ষে, আমরা সত্যের অনুসারী। পত্রিকা দুটির পথচলায় অপনাদের সহযোগিতা ও সমর্থন আমাদের পথ চলতে সাহস জোগাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উপদেষ্টা সম্পাদক রাহাত খান বলেন, আমরা রাজনীতি সচেতন হলেও দল নিরপেক্ষ। দেশের প্রয়োজনে উজানে যেতে হলেও যাব। আমরা প্রতিশ্রুত, আমরা সত্যের অনুসারী।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা জানান ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। এছাড়া অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠান তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও অর্থনীতিবিদ ড. আকবর আলী খান, ব্যারিষ্টার মঈনুল হোসেন। অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক রেহমান সোবহান, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, কলামিষ্ট হায়দার আকবর খান রনো। মায়ের অসুস্থতার জন্য অনুষ্ঠানে আসতে পারেননি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

দৈনিক বর্তমান-এর উপদেষ্টা সম্পাদক রাহাত খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বর্ণ্যাঢ্য অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজনীতিবিদ, সরকারি উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সমাজসেবক, ব্যবসায়ি, মিডিয়া কর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

সর্বশেষ