চট্টগ্রামে বিলবোর্ড অপসারণে সম্পাদকদের নৈতিক সমর্থন

বুধবার, জুন ১৯, ২০১৩

প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

ctg editor(১৯ জুন ২০১৩)- বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের সৌন্দর্য রক্ষায় অবৈধ বিলবোর্ড উচ্ছেদের দাবি জানিয়ে সিটি মেয়রকে স্মারকলিপি দিয়েছেন চট্টগ্রাম থেকে প্রকাশিত বিভিন্ন দৈনিকের সম্পাদকরা। এসময় তারা এ অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আহবান জানান।
বুধবার সকালে মেয়রের বাসভবনে চট্টগ্রামের বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদকরা মেয়র এম মনজুর আলমের কাছে এ স্মারকলিপি দেন। এসময় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এম মনজুর আলম সম্পাদকদের কাছে এ কাজে সহযোগিতা চেয়েছেন।

চট্টগ্রামকে পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে অবৈধ বিলবোর্ড উচ্ছেদে কর্পোরেশনের যেকোন উদ্যোগকে নৈতিকভাবে সমর্থন দেয়া হবে বলে মেয়রকে আশ্বস্ত করেন সম্পাদকরা।

এসময় দৈনিক আজাদী’র সম্পাদক এম এ মালেক, দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদক স্থপতি তসলিম উদ্দিন চৌধুরী, নির্বাহী সম্পাদক ডা. রমিজ উদ্দিন চৌধুরী, দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশ সম্পাদক রুশো মাহমুদ, বীর চট্টগ্রাম মঞ্চ সম্পাদক সৈয়দ উমর ফারুক, পূর্বদেশ সম্পাদক ওসমান গণি মনসুর, দৈনিক কর্ণফুলী সম্পাদক আফসার উদ্দিন চৌধুরী এবং সিটি কর্পোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা সাইফুদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।
স্মারকলিপিতে সম্পাদকদের পক্ষ থেকে বলা হয়, নগরীর তিন-চতুর্থাংশ বিলবোর্ডই অবৈধভাবে স্থাপন করা হয়েছে। এসব বিলবোর্ড স্থাপনে কর্পোরেশনের ২৫ শর্তযুক্ত নীতিমালা অনুসরণ করা হয়নি। এ অনিয়মের দায়ে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

স্মারকলিপিতে তারা বলেন, এসব বিলবোর্ডের মধ্যে অধিকাংশই স্থাপন করা হয়েছে উচ্চ ভোল্টেজের বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন ও টেলিফোন লাইন ঘেঁষে। কিছু রয়েছে রেলপথ ও হালকা স্থাপনার উপর। প্রাকৃতিক দুর্যোগপ্রবণ এলাকা হওয়ায় চট্টগ্রাম প্রতিমুহূর্তে ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।
বিলবোর্ড অপসারণে কর্পোরেশনের উদ্যোগ সফল হয়নি উল্লেখ করে স্মারকলিপিতে বলা হয়, এসব কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ কঠোর পদক্ষেপ নিতে পারেনি।

এসময় মেয়র এম মনজুর আলম বলেন, ‘বিলবোর্ড স্থাপন খাতে বছরে আয় হয় এক থেকে দেড় কোটি টাকা। এই টাকা না হলেও চলবে। দীর্ঘদিন ধরে বিলবোর্ড স্থাপনের ব্যাপারে নীতিমালা ছিল না। তাই অবৈধ বিলবোর্ডের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে যেসব যেসব বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো বিলবোর্ড স্থাপনের ব্যাপারে অনিয়ম করেছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। নগরীর সৌন্দর্য ও নগরবাসীর নিরাপত্তা আমার কাছে অনেক বড়।’