অর্থ সংকটে গ্রিসের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার সংস্থা বন্ধ ঘোষণা

বৃহস্পতিবার, ১৩/০৬/২০১৩ @ ৮:৫৮ পূর্বাহ্ণ

প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

Journalist(১৩ জুন ২০১৩)- অর্থ বাঁচানোর লক্ষ্যে গ্রিস সরকার অপ্রত্যাশিতভাবে দেশটির রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার সংস্থা বন্ধ করে দিয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে সংবাদ চলার সময় দর্শকরা রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেলের পর্দাটি কালো হয়ে যেতে দেখেন। এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার মাধ্যম, হেলেনিক ব্রডকাস্টিং করপোরেশন বা ইআরটি কার্যালয়ের সামনে হাজার-হাজার মানুষ জড়ো হয়েছেন।

সরকারের একজন মুখপাত্র ইআরটির অপচয়ের মাত্রাকে একটি কেলেঙ্কারি হিসেবে বর্ণনা করেছেন। সংস্থাটির আড়াই হাজার কর্মীকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। যদিও তাদেরকে ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে এবং সংস্থাটি আবারো ছোট আকারে চালু হলে তারা সেখানে চাকরির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

গ্রিসের অর্থনৈতিক মন্দা কাটানোর লক্ষ্যে সরকারের নেয়া একের পর এক ব্যয় সংকোচন এবং কর বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের পর এবার বন্ধ করে দেয়া হলো রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম, ইআরটি।

সরকারের মুখপাত্র বলেছেন, ইআরটি হচ্ছে অস্বচ্ছতা এবং অপচয়ের একটি অনন্য উদাহরণ, যা এখনি বন্ধ করা হলো। এ সিদ্ধান্তের ফলে সংস্থাটির অন্তত আড়াই হাজার কর্মী তাদের চাকরি হারাবে।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন এনইটি টিভি চ্যানেল পর্দাটি কালো হয়ে যাবার আগে উপস্থাপক দর্শকদের উদ্দেশ্য করে বলছিলেন, তিনি এবং তার সহকর্মীরা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে তারা একটি আলোচনা অনুষ্ঠান চালিয়ে যাবেন। তার কয়েক সেকেন্ড পরেই টেলিভিশন সিগনাল বন্ধ করে দেয়া হয়।

গ্রিসের শ্রমিক সংগঠনগুলোও এ সিদ্ধান্তে কড়া বিরোধিতা করেছে। ইআরটির সমর্থকরা বলছেন, সংস্থাটি গ্রিসের জনগণের জন্য একটি অপরিহার্য সেবা প্রদান করছে। ইআরটির আন্তর্জাতিক সংবাদ বিভাগের প্রধান ওহডিন লিনারডাটু বিবিসিকে বলছিলেন, এ সিদ্ধান্ত তাদের বিস্মিত করেছে।

তিনি বলেন, “গণতান্ত্রিক গ্রীসে জনগণের একটি সম্প্রচারমাধ্যম থাকবে না, এটা আমি স্বীকার করতে পারি না।”

ইআরটির অধীনে তিনটি জাতীয় টেলিভিশন চ্যানেল এবং চারটি জাতীয় রেডিও স্টেশন ছাড়াও ভয়েস অফ গ্রীস নামের একটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমও রয়েছে। সূত্র: বিবিসি