শওকত মাহমুদকে ব্যাংককে নেওয়া হলো

বুধবার, ২৯/০৫/২০১৩ @ ৯:২৭ পূর্বাহ্ণ

প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

showkot-mahmud--(২৯ মে ২০১৩)- উন্নত চিকিৎসার জন্য ব্যাংকক নেয়া হয়েছে সাংবাদিক শওকত মাহমুদকে। তাকে ব্যাংকক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে এয়ার এম্বুলেন্সে করে তাকে ব্যাংকক নিয়ে যাওয়া
হয়।

সোমবার বিকালে আকস্মিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে শওকত মাহমুদকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি মাইল্ড (মৃদু) হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হলেও নিউমোনিয়ায় ভুগছেন। নিজ থেকে নিঃশ্বাস নিতে পারছিলেন না।

ভর্তির পর হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্চা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে তাকে ভেন্টিলেটরের মাধ্যমে কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাস দেয়া হয়।

শওকত মাহমুদের চিকিৎসার জন্য হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ফাওয়াজ শুভ’র নেতৃত্বে ৫ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। বোর্ডে ছিলেন কার্ডিওলজি, ইন্টারনাল মেডিসিনের চিকিৎসক ও আইসিইউ ইনর্চার্জ।

শওকত মাহমুদকে হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখে বোর্ড দু’দিন চিকিৎসা দেয়। মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় বোর্ড মিটিং করে চিকিৎসা বিষয়ে সর্বশেষ পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হয়।

ডা. শুভ বাংলামেইলকে বলেন, ‘সোমবার সকালে হাসপাতালে ভর্তির পর থেকে শওকত মাহমুদের অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তিনি এখন নিজেই অক্সিজেন নিতে পারছেন। আশা করি, ব্যাংককে নিয়ে চিকিৎসা দিলে তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন।’

এর আগে সোমবার রাতে ইউনাইটেড হাসপাতালে শওকত মাহমুদকে দেখতে গিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এরপর তাকে ব্যাংকক নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি শুরু করে পরিবার। খালেদা জিয়া চিকিৎসার সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখছেন।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ বিরোধীদলীয় নেত্রীর উপদেষ্টা।

শওকত মাহমুদের সঙ্গে ব্যাংকক গেছেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও তার পারিবারিক বন্ধু সৈয়দ আবদাল আহমেদ।

বাংলাদেশ ত্যাগের আগে সৈয়দ আবদাল বলেন, ‘স্বাস্থ্যের উন্নতি না হওয়ায় শওকত মাহমুদকে ব্যাংকক নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।’ সূত্র: বাংলামেইল।