‘গণমাধ্যমের গলা টিপে ধরা কোনো সমাধান নয়’

শনিবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৩

প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক::

rofiqul-hqগণমাধ্যমের গলা টিপে ধরা কোনো সমাধান নয় উল্লেখ করে প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক বলেছেন, এ ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করে কোনো লাভ হবে না। কারণ, সরকারের সব ধরনের কর্মকাণ্ড ইতিমধ্যে জনগণের কাছে পৌঁছে গেছে।
রফিক-উল হক বলেন, “আমার দেশ পত্রিকার সঙ্গে সরকার যা করছে, বাংলাদেশের ইতিহাসে এমন ঘটনা নতুন নয়। যে সরকারই ক্ষমতায় আসে, তারাই গণমাধ্যমের পেছনে লেগে থাকে।”

শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি ল্উাঞ্জে নিউজ বিএনএন ও সল্যুশন অব বাংলাদেশ আয়োজিত ‘মাহমুদুর রহমানকে রিমান্ডে নেয়া ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

গণমাধ্যমকে দমন না করার আহ্বান জানিয়ে সরকারের উদ্দেশে রফিক-উল হক বলেন, “দেশের মানুষ এখন সজাগ। গণমাধ্যমকে দমনের চেষ্টা করবেন না। আমরা গণতন্ত্র রক্ষার জন্য সংগ্রাম করে যাব। সরকার যা করার করবে। আপনারা (সাধারণ জনগণ) আমাদের সংগ্রামে থাকবেন। আমরা নীতি থেকে কখনো বিচ্যুত হব না।” গণমাধ্যমকে তার নিজের মতো চলতে দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

ব্যারিস্টার রফিক-উল-হক সাভারের ভবনধসের বিষযে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে বলেন, হাস্যকর কথা না বলে সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে দায়িত্বের সঙ্গে সবকিছু করা উচিত।

নির্বাচন প্রসঙ্গে এই বর্ষীয়ান আইনজীবী বলেন, “প্রধানমন্ত্রী চান অন্তরবর্তীকালীন সরকার, আর খালেদা জিয়া চান র্নিদলীয় সরকার। আমি মনে করি, দুটির মাঝামাঝি হয়ে একটি সমাধানে আসা উচিত, যাতে একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়।”

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন নাগরিক অধিকার রক্ষা কমিটির আহ্বায়ক কবি ফরহাদ মজহার। বক্তব্য দেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, মহাসচিব শওকত মাহমুদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষক ড. আসিফ নজরুল, দৈনিক নিউনেশন পত্রিকার সম্পাদক মোস্তফা কামাল মজুমদার প্রমুখ।