জাবির গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীদের হাতে দু’সাংবাদিক লাঞ্ছিত

শনিবার, এপ্রিল ৬, ২০১৩

প্রেসবার্তাডটকম প্রতিবেদন::

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে গণজাগরণ মঞ্চের অবরোধ কর্মসূচির খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে একুশে ও বৈশাখী টেলিভিশনের দুই সাংবাদিক লাঞ্ছিত হয়েছেন।

শনিবার সকালে গণজাগরণ মঞ্চের ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধের সময় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হেফাজতে ইসলামের ডাকা লংমার্চ ঠেকাতে গণজাগরণ মঞ্চের ঘোষিত রেল, নৌ ও সড়কপথ অবরোধ কর্মসূচির অংশ হিসেবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের গণজাগরণ মঞ্চের শতাধিক নেতাকর্মীর নেতৃত্বে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছে।

এ সময় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীদের লংমার্চ অংশগ্রহণ না করতে দেওয়ার ছবি সংগ্রহ করতে গেলে একুশে টেলিভিশনের সাভার প্রতিনিধি নাজমুল হুদা ও বৈশাখী টেলিভিশনের সাভার প্রতিনিধি আব্দুল হালিমকে লাঞ্ছিত করে গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। পরে একুশে টেলিভিশনের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয় তারা।

এ ঘটনার বিচারের দাবিতে সাভারের সাংবাদিকরা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবস্থান ধর্মঘট পালন করে। এ সময় তারা ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন।

পরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ার হোসেনের আশ্বাসে সাংবাদিকরা মহাসড়ক থেকে অবরোধ তুলে নেন।

এ সময় উপাচার্য বলেন, ‘গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। জড়িতদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।’

তবে এদিকে সাংবাদিক লঞ্ছিত হওয়ার ঘটনার কথা অস্বীকার করেন গণজাগরণ মঞ্চের নেতা তন্ময় ধর। তিনি বলেন, ‘এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি।’