সত্য বলার সাহসিকতায় সাংবাদিকতার মূলমন্ত্র

রবিবার, নভেম্বর ১, ২০১৫

:: প্রেসবার্তাডটকম ডেস্ক ::

Captureসামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে সাংবাদিকতার শুরু। সত্য বলার সাহসিকতায় সাংবাদিকতার মূলমন্ত্র। যাদের সত্য বলার অদম্য সাহস আছে তারাই সাংবাদিকতা করার যোগ্যতা রাখে। ‘সৎ ও সাহসী’ সাংবাদিক এখন বিরল প্রজাতীর প্রাণীর মতো। কেউ কেউ সাংবাদিকতা পেশায় সৎ হিসেবে নিজেদের অবস্থান ধরে রেখেছে।

কিন্তু তাদের সাহস নেই, তাই তারা সন্ত্রাস ও দূর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে লেখালেখি করে না বরং তাদের তোষামোদি করে চলে। আবার কেউ কেউ খুব সাহসী কিন্তু দূর্নীতি পরায়ণ। তারা তাদের সাহসীকতাকে পূঁজি করে নীতিকে অর্থের কাছে বিকিয়ে দেয়। বর্তমান সময় প্রযুক্তির সময়। তাই পরিবর্তনকে কাজে লাগিয়ে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে।

শুক্রবার বোয়ালখালী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে দিনব্যাপী লেখালেখি বিষয়ক কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

বক্তারা আরও বলেন, কোন একটি সংবাদ যদি খুব গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দিতে পারে তাহলে সেটি সমাজ পরিবর্তনে সহায়ক হয়। দেশে অনেক নজীর আছে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে নীতি নির্ধারকরা অনেক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সংবাদ লিখনের সময় কি কারণে বা কিভাবে মূল্যায়িত হতে পারে সেটি লক্ষ্য রেখে সাংবাদিকদের সংবাদ প্রস্তুত করতে হবে।

বিকেলে অভিনন্দনপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কর্মশালার উদ্যোক্তা লেখক, সংগঠক ও সাংবাদিক এম.ইউছুপ রেজা।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন-দৈনিক আজাদীর ফিচার সম্পাদক সাংবাদিক ও নাট্যকার প্রদীপ দেওয়ানজী। প্রধান আলোচক ছিলেন-জাতীয় দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান শহীদুল্লাহ শাহরিয়ার। বিশেষ অতিথি ছিলেন- দৈনিক আজাদীর সিনিয়র রিপোর্টার শুকলাল দাশ, দৈনিক পূর্বকাণের সহসম্পাদক শাহীদ হাসান, দৈনিক পূর্বদেশের সহকারি সম্পাদক দেবদুলাল ভৌমিক।

মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য দেন-বোয়ালখালী প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম, মুৎসুদ্দি দিলু বড়–য়া, মো. জাবেদ হোসেন, বিকাশ নাথ, এম.তাজুল ইসলাম মানিক, বাবর মুনাফ প্রমুখ।