শেরপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক বহিস্কার

মঙ্গলবার, জুন ৯, ২০১৫

:: শেরপুর প্রতিনিধি ::

pressএকাধিক প্রতিষ্ঠানে অনৈতিক চাপ প্রয়োগ এবং হলুদ সাংবাদিকতার মাধ্যমে নিজেদের প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অভিযোগে দুই সাংবাদিককে বহিস্কার করেছে শেরপুর প্রেসক্লাব। ৮ জুন সোমবার রাতে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কার্যকরী পরিষদের এক জরুরী সভায় ওই বহিস্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বহিস্কৃত সাংবাদিকরা হলেন প্রেসক্লাবের সদ্য নবায়নকৃত সদস্য দৈনিক জনতা ও জামালপুর থেকে প্রকাশিত দৈনিক পল্লীকন্ঠ প্রতিদিনের শেরপুর জেলা প্রতিনিধি জিএইচ হান্নান ও সহযোগি সদস্য অনলাইন নিউজ পোর্টাল শেরপুর নিউজ টুয়েন্টিফোর এর প্রধান বার্তা সম্পাদক তপু সরকার হারুন। এছাড়া ছামিদুল ইসলাম জীবন নামে এক অসদস্য সাংবাদিকসহ ওই তিনজনকেই সকল ক্ষেত্রে বয়কটে সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জ্ঞাপনের সিদ্ধান্তও নেয়া হয়।

প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা জরুরী সভায় নেওয়া ওই সিদ্ধান্তের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শেরপুর নার্সিং ইনস্টিটিউট ও মাতৃসদনসহ বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে অনিয়মের অভিযোগ উত্থাপনের নামে ওইসব প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনৈতিক চাপ প্রয়োগসহ হলুদ সাংবাদিকতার গুরুতর অভিযোগ উঠে সাংবাদিক জিএইচ হান্নান ও তপু সরকার হারুনের বিরুদ্ধে। এছাড়া ছামিদুল ইসলাম জীবন নামে এক অসদস্যের বিরুদ্ধে হলুদ সাংবাদিকতাসহ প্রেসক্লাব ও ক্লাবের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অপতৎপরতার অভিযোগ উঠে।

বিষয়গুলো প্রেসক্লাব ও কর্মরত সাংবাদিকদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকর হওয়ায় সোমবার রাতে প্রেসক্লাব সভাপতি রফিকুল ইসলাম আধারের সভাপতিত্বে কার্যকরী পরিষদের এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। ১১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী পরিষদের ওই সভায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ ১০ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। সভায় প্রেসক্লাব সদস্য জিএইচ হান্নানকে সাময়িক বহিস্কার করে তার বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগের বিষয়ে তদন্তপূর্বক ৫ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সাধারণ সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলাকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

এছাড়া তপু হারুনকে তার সহযোগি সদস্য পদ বাতিলক্রমে সরাসরি বহিস্কার করা হয়। আর অসদস্য ছামিদুল ইসলাম জীবনসহ ওই তিনজনকেই প্রশাসন এবং সকল সরকারী-বেসরকারী ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন দায়িত্বশীল প্রতিষ্ঠানে/অনুষ্ঠানে বয়কটে সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।